হোম পৃষ্ঠা / গুনিজন / একুশে বইমেলার উদ্যোক্তা নোয়াখালীর কিংবদন্তী

একুশে বইমেলার উদ্যোক্তা নোয়াখালীর কিংবদন্তী

চিত্তরঞ্জন সাহা উনিশশত সাতাশ সালে নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ উপজেলার লতিফপুরে জন্মগ্রহন করেন।বাবার নাম কৈলাশচন্দ্র সাহা এবং মায়ের নাম তীর্থবাসী সাহা।উনি কর্মজীবন শুরু করেন উনিশশত একান্ন সালে।তিনি প্রথম চৌমুহনীতে বইয়ের দোকান দিয়ে শুরু করেন পুস্তক ব্যবসা।ঐ দোকানে মূলত স্কুল পাঠ্যবই এবং নোটবই।
বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধেরপর উনিশশত বাহাত্তর সালে ফেব্রুয়ারী আট তারিখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন বর্ধমান হাউসের সামনে বটতলায় একটুকু চটের উপর কলকাতা থেকে আনা বত্রিশটি বই সাজিয়ে একটি বইমেলা শুরু করলেন।সেই থেকেই বাংলা একাডেমীর বইমেলার সূচনা।বাহাত্তর থেকে ছিয়াত্তরসাল পর্যন্ত একাই তিনি বাংলাএকাডেমী প্রাঙ্গনে মেলা চালিয়ে যান।ছিয়াত্তর সালে তার সাথে অন্যরা অনুপ্রানিত হন।উনিশশত আটাত্তর সালে বাংলা একাডেমীর মহাপরিচালক আশরাফ সিদ্দিকী বাংলাএকাডেমীকে মেলার সাথে সরাসরি সংযুক্ত করেন।উনিশশত উনআশি সালে মেলার সাথে যুক্ত হয় ‘বাংলাদেশ পুস্তক বিক্রেতা ও প্রকাশক সমিতি’।এ সংস্থাটিও সংঘটিত করেছিলেন চিত্ত রঞ্জনসাহা।দুহাজার পাচসালে তিনি একুশেপদকে ভুষিত হন।
দুহাজার সাতসালে তিনি মৃত্যুবরন করেন।

সম্পর্কে Abu Bakar

আমি মানুষ,আমি মুসলমান,আমি বাঙ্গালি,আমি নোয়াখাইল্লা।

Check Also

নোয়াখালীর কিংবদন্তী শিল্পী আবুল হাসেম

“আঙ্গো বাড়ি নোয়াখালী,রয়েল ডিস্ট্রিক্ট ভাই”।”রিকশাওয়ালা কুচকাই চালা ইস্টিসন যাইয়ুম”অথবা স্বাধীনতা সংগ্রাম চলাকালীন মুক্তিযুদ্ধাদের অনুপ্রেরনার দিতে …

Leave a Reply