হোম পৃষ্ঠা / প্রয়োজনীয় তথ্য / বানিজ্যিকভাবে উৎপাদিত হতে পারতো কামরাঙা

বানিজ্যিকভাবে উৎপাদিত হতে পারতো কামরাঙা

কামরাঙার ইংরেজি নাম CARAMBOLA। কামরাঙার মূল পরিসীমা অজানা।শতশত বছর ধরে ভারতীয় উপমহাদেশ এবং দক্ষিনপূর্ব এশিয়া অঞ্চলসমূহে এর চাষ করা হয়েছে।বাংলাদেশের গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী ফল কামরাঙা।কিন্ত গ্রামবাংলায় নানা অনাদরে,অবহেলায় হারিয়ে যাচ্ছে সম্ভাবনাময় ফলটি।কামরাঙা অস্ট্টেলিয়ার কুইসল্যান্ড অঞ্চলে বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে।পাশাপাশি তাহিতি,নিউ ক্যালিডোনিয়া,পাপুয়া নিউগিনি ,হাওয়াই এবং গুয়াম অঞ্চলে ব্যাপক প্রসার লাভ করে।কিন্তু দু:খজনক হলেও সত্য,বাংলাদেশে ফলটি সাম্প্রতিককালে দুর্লভ হয়ে পড়ছে।অথচ কামরাঙা বানিজ্যিকভাবে উৎপাদন করে বৈদেশিক মূদ্রা অর্জন সম্ভব ছিল।ভারত,দক্ষিন পূর্ব এশিয়া,দক্ষিন চীন,তাইওয়ান এবং ফ্লোরিডায় বানিজ্যিকভাবে কামরাঙার চাষ করা হয়।

উপকারিতা:
কামরাঙায় প্রচুর পরিমানে এন্টিঅক্সিডেন্টস ও ভিটামিন রয়েছে।যা ত্বকের জন্য খুবই উপকারী।এটি খাওয়ার পাশাপাশি আপনার ত্বকে বিভিন্ন উপায়ে ব্যবহার করতে পারেন।এটি আপনার ত্বকে তারন্য ধরে রাখবে এবং ত্বক দাগমুক্ত রাখবে।

সম্পর্কে Abu Bakar

আমি মানুষ,আমি মুসলমান,আমি বাঙ্গালি,আমি নোয়াখাইল্লা।

Check Also

আদর্শিক কর্মী

প্রত্যেক আদর্শিক আন্দোলনের কর্মীদের সুনির্দিষ্ট মিশন ও ভিশন থাকে। আন্দোলনের মিশন ও ভিশনই তাদের জীবনের …

Leave a Reply