হোম পৃষ্ঠা / মুক্তিযুদ্ধের ডায়েরি

মুক্তিযুদ্ধের ডায়েরি

আজ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস

নয়মাস মুক্তিযুদ্ধে দেশ স্বাধীন হওয়ার পর উনিশশত বাহাত্তর সালের এই দিনে লন্ডন দিল্লী হয়ে দেশে ফিরে আসেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।বাঙালিকে পরাধীনতার শিকল থেকে মুক্ত করে একটি স্বাধীনদেশ এনে দেওয়ার লড়াইয়ে এ মহানায়কের দেশে ফেরা একটি অনন্যক্ষন।দিবসটি উৎযাপনে নানা কর্মসূচি পালন করেছে বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংঘটন।দিবসটি উপলক্ষে …

বিস্তারিত »

প্রথম স্বীকৃতিদানকারী দেশ ভূটান

দীর্ঘ ৯ মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের পর আমরা পেয়েছি আমাদের কাঙ্ক্ষিত স্বাধীনতা। এই সময় আমরা আমাদের পাশে পেয়েছি অনেক বন্ধুপ্রতিম রাষ্ট্র, পেয়েছি বিরোধিতাকারীও।যেমন বিরোধিতা করেছিল যুক্তরাষ্ট্র,সৌদিআরব,চীনসহ তাদের মিত্রদেশগুলো।।বিজয় লাভের পর কয়েকটি দেশ আমাদেরগ্রহণ করেনি, আবার অনেকেই গ্রহণ করেছে বন্ধুর মতো করে।সৌদি এবং চীন বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেয় পচাত্তরের পরবর্তী সময়ে। ১৯৭১ সালের …

বিস্তারিত »

মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অবদান সম্পর্কে কতটুকু জানেন?

মুক্তিযুদ্ধে ভার‌তের অবদান সম্পর্কে কে কত টুকু জা‌নেন ? একাত্তর সালের প্রথম থেকে নয়মাস পর্যন্ত আন্তর্জাতিক আইন ভেঙ্গে তৃতীয় বিশ্বের একটি দেশ হয়েও এককোটি বাসস্থান হারা,আতঙ্কিত মানুষকে আশ্রয় ,খাদ্যের যোগান দিয়েছিল ভারত।যেখানে কলকাতা এবং ত্রিপুরাবাসীদের অবদান অনসীকার্য।যা বিশ্বের ইতিহাসে বিরল।ভারত সরকার অস্রের যোগান ও মুক্তিবাহিনীকে ট্রেনিং করার সুযোগ করে দিয়েছিল। …

বিস্তারিত »

মুক্তিসেনাদের ক্যাম্প থেকে লিখছি

মা, মুক্তিসেনাদের ক্যাম্প থেকে লিখছি। এখন বাইরে বেশ বৃষ্টি হচ্ছে। তাঁবুর ফাঁক দিয়ে দেখতে পাচ্ছি সমস্ত দিগন্ত মেঘলা মেঘলা। মাঝে মাঝে বিদ্যুৎ চমকাচ্ছে। সকাল থেকে বৃষ্টি হচ্ছে কিনা, তাই মনটা ভালো না। আচ্ছা মা, সারা রাত এমনি চলার পর পূর্বাকাশে যে লাল সূর্য ওঠে, তার কাঁচা আলেঅ খুব উজ্জল হয়, …

বিস্তারিত »

বিজয়ের স্বাদ: আমাদেরও আছে কিছু করণীয়।

আজ মহান বিজয় দিবস। বাঙালির জন্য আরেকটি আনন্দের দিন। কিন্তু এই আনন্দ আর্জন করতে এই জাতিকে কতটুকু ত্যাগ করতে হয়েছে সে কথা সবারই জানা। সেই ত্যাগদের কতটুক মূল্যায়ন আমরা করতে পারছি? কথায় আছে-স্বাধীনতা অর্জনের ছেড়ে রক্ষা করা কঠিন। আমরা লাখ শহীদের ত্যাগের বিনিময়ে আমরা যে বিজয় অর্জন করেছি তার কতটুকু …

বিস্তারিত »

ঐতিহাসিক নোয়াখালী হানাদার মুক্ত দিবস ও মুক্ত স্কয়ারের উদ্ভোধন

ঐতিহাসিক ৭ডিসেম্বর নোয়াখালী হানাদার মুক্ত দিবস উপলক্ষে একটি বর্ণাঢ্য র্যালী আলোচনা সভা ও মুক্তস্কয়ারের উদ্ভোধন করে নোয়াখালী মুক্তিযোদ্ধা সংসদ। জেলা মুক্তিযোদ্ধা সভাপতি মোজাম্মেল হোসেন মিলনের নেতৃত্বে র্যালীটি হাসপাতাল রোড় থেকে বেরিয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে পরে মুক্ত স্কয়ারে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের পর আলোচনা সভায় যোগদান করে। এতে প্রধান অতিথি …

বিস্তারিত »

একাত্তরের আজকের এই দিনে নোয়াখালীর মাইজদীতে চলছিলো তুমুল লড়াই

৬ ডিসেম্বর দুপুরের খাবার খেতে খেতে রেডিওতে ভারতের আকাশবাণী কলকাতার খবর শুনছিলেন মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক বাদল। দেব দুলাল বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভারী কণ্ঠ জানাচ্ছিল দেশের নানা জায়গায় হানাদার বাহিনীর আত্মসমর্পণের খবর। আরও জানাল, বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দিয়েছে ভারত। খবর শুনে আনন্দে চিৎকার করে ওঠেন ফজলুল হক ও তাঁর সহযোদ্ধারা। তাঁদের সেই উল্লাসধ্বনিতে নোয়াখালীর …

বিস্তারিত »

নিভৃতে বীরের স্মৃতি : ওয়াসিম জামিল

স্বাধীনতা যুদ্ধে আত্মদানকারী সাত জন বীরশ্রেষ্ঠের একজন নোয়াখালীর রুহুল আমিন। কিন্তু পরিতাপের বিষয়, এই বীরের স্মৃতি সংরক্ষনে সরকারিভাবে তেমন উদ্যোগ লক্ষ্য করা যায়নি। এমনকি নৌবাহিনী হতে একমাত্র বীরশ্রেষ্ঠ খেতাব পাওয়া মুক্তিযোদ্ধা হওয়া সত্বেও, নৌবাহিনীও তার স্মৃতি সংরক্ষনে বড় কোন পদক্ষেপ নেয়নি। ইপিআর এর দুইজন বীরশ্রেষ্ঠের নামে পিলখানায় ঢাকার অন্যতম দুটি …

বিস্তারিত »

মুক্তিযুদ্ধে নোয়াখালীর প্রথম দেয়াল পত্রিকা ‘স্বাধীনতা’ মাহ্‌মুদুল হক ফয়েজ

মহান মুক্তিযুদ্ধ শুরু হবার অনেক আগ থেকেই নোয়াখালীতে শুরু হয় মুক্তিযুদ্ধের প্রস্তুতি। সত্তুরের ১২ই নভেম্বর ইতিহাসের বিভিষিকাময় জলচ্ছাসে নোয়াখালীর উপকূল ছিন্ন বিচ্ছিন্ন হয়ে বিরান অঞ্চলে পরিনত হয়। মৃত্যুর হীম শীতল কোলে চলে পড়ে লক্ষ লক্ষ মানুষ। সে সময় পাকিস্তান সরকারের অবহেলায় দীর্ঘদিন ধরে পঁচা গলিত লাশ উন্মুক্ত চরে পড়েছিল। সে …

বিস্তারিত »

বেগমগঞ্জ থানার কিছু কুখ্যাত রাজাকারের শেষ ঠিকানা

১৯৭১ সালে ডিসেম্বর মাসের প্রথম দিকে এই স্থানে একসাথে জীবন্ত মাটি দেওয়া হয়েছে নোয়াখালীর জেলার প্রায় ১২/১৩ তের জন কুখ্যাত রাজাকার কে যাদের মধ্যে প্রধান হচ্ছে চাঁনতাঁরা বসু। চাঁনতাঁরা বসুর বিষয়ে সামান্য কিছু বর্ণনাঃ যুদ্ধ চলাকালীন সময়ে এই বেয়াদব রাজাকার চাঁনতাঁরা বসুর অত্যাচারে এই অঞ্চলের আশেপাশের বাসিন্দাদের হারাতে হয়েছে…অনেক মা …

বিস্তারিত »

৭১-এ নারী নির্যাতনের ভয়াবহতা বিশ্বের এখনো অজানা

একাত্তরে আমাদের নারীদের ওপর পরিচালিত পাকিস্তানি সৈন্যদের যৌন নির্যাতনের ধরন কতোটা ভয়াবহ, কতোটা বীভৎস ছিল- যুদ্ধ চলাকালে এদেশ থেকে প্রকাশিত কোনো দৈনিকে তা প্রকাশিত হয় নি। প্রকাশিত হয়নি বিদেশী সংবাদ মাধ্যমে পরিবেশিত বাংলাদেশের যুদ্ধ সংবাদেও। ১৬ ডিসেম্বর বিজয় অর্জনের পর থেকে জাতীয় দৈনিকগুলোতে পাকিস্তানিদের নারী নির্যাতনের বেশ কিছু সংবাদ প্রকাশিত …

বিস্তারিত »

যুদ্ধ আমাকে দেখতে হবে। কারণ তথ্যগুলো আমার উপন্যাসে লাগবে : শহীদুল্লাহ কায়সার

‘এমনিতে শহীদুল্লাহ কায়সার খুব কথা বলতেন। কিন্তু যেদিন যুদ্ধ শুরু হলো সেদিন থেকে তিনি চুপ। সারাদিন টেনশনে থাকেন। যুদ্ধের আগে তাঁকে অনেকে বাড়ী ছেড়ে চলে যেতে অনুরোধ করেছেন। কিন্তু তিনি রাজী হননি। কারণ তিনি ব্যস্ত ছিলেন একটি উপন্যাস রচনায়। তাই তিনি বলতেন, ‘যুদ্ধ আমাকে দেখতে হবে। কারণ তথ্যগুলো আমার উপন্যাসে …

বিস্তারিত »